বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ানবাগী চলে গেছেন না ফেরার দেশে।

1

রাজধানীর আরামবাগে অবস্থিত ‘দেওয়ানবাগ দরবার শরীফ’-এর পীর বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ানবাগী (সৈয়দ মাহবুব-এ-খোদা) চলে গেছেন না ফেরার দেশে (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা ৪৮ মিনিটে তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) ওয়ালিদ হোসেন দেওয়ানবাগীর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ভোর সাড়ে পাঁচটার পর তার শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে আরামবাগের দেওয়ানবাগ শরীফে ভক্তদের ঢল নামে।

এর আগে ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তার মৃত্যু গুজব ছড়ায়। সে সময় তিনি ইউনাইটেড হাসপাতালে বেশ কিছুদিন চিকিৎসা নিলেও মৃত্যুর খবরটি সঠিক ছিল না।

দেওয়ানবাগ শরিফের ওয়েবসাইটের তথ্যানুযায়ী, দেওয়ানবাগী পীরের নাম মাহবুব-এ খোদা। তবে তিনি ‘দেওয়ানবাগী’ নামে পরিচিত। ১৯৪৯ সালের ১৪ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম সৈয়দ আবদুর রশিদ সরদার। মা সৈয়দা জোবেদা খাতুন। ছয় ভাই দুই বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। নিজ এলাকার তালশহর কারিমিয়া আলিয়া মাদ্রাসা থেকে ফাজিল পর্যন্ত পড়াশুনা করেন।

ফরিদপুরে চন্দ্রপাড়া দরবারের প্রতিষ্ঠাতা আবুল ফজল সুলতান আহমেদ চন্দ্রপুরীর হাতে বাইয়াত গ্রহণ করেন দেওয়ানবাগী পীর। এরপর তাঁর মেয়ে হামিদা বেগমকে বিয়ে করেন দেওয়ানবাগী। এর সুবাদে শ্বশুরের কাছ থেকে খিলাফত লাভ করেন। তার কিছু দিন পর নিজেই নারায়ণগঞ্জে দেওয়ানবাগ নামক স্থানে একটি আস্তানা গঠন করেন এবং নিজেকে সুফি সম্রাট পরিচয় দেন। সর্বশেষ মতিঝিলের ১৪৭ আরামবাগ, ঢাকা-১০০০ এই ঠিকানায় একটি দরবার স্থাপন করেন দেওয়ানবাগী।

One thought on “বীর মুক্তিযোদ্ধা দেওয়ানবাগী চলে গেছেন না ফেরার দেশে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মাহবুব-এ-খোদা দেওয়ানবাগী পীরকে রাষ্ট্রীয় সম্মাননায় দাফন করা হয়েছে।

Tue Dec 29 , 2020
মঙ্গলবার সকাল থেকেই বিপুলসংখ্যক ভক্ত ও মুরিদ ভিড় জমান আরামবাগ দরবার শরিফে। দুপুর আড়াইটার দিকে আরামবাগ দরবার শরিফের পাশের সড়কে জানাজা হয়। এতে বিপুলসংখ্যক মানুষ অংশ নেন। জানাজার আগে পীর দেওয়ানবাগীর ওছিয়ত অনুযায়ী ছেলেদের দরবারের ইমাম করার ঘোষণা দেয়া হয়। এ সময় ভক্তদের মধ্যে অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। সেখানেই তাকে […]